‘অমিতাভজি হাত মিলিয়েছেন, হাত ধুয়ো না’

অভিনেত্রী দিব্যা ভারতী মাত্র ১৪ বছর বয়স থেকে বলিউডে অভিনয় শুরু করেন। কয়েক বছরের ক্যারিয়ারে একের পর এক হিট সিনেমা দর্শকদের উপহার দিয়েছেন অকাল প্রয়াত এই আলোচিত অভানেত্রী।

সম্প্রতি ক্ষণজন্মা এই অভিনেত্রীর ৪৮তম জন্মবার্ষিকীতে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সামািজক গণমাধ্যমগুলোতে। সেখানে অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে একটি বিশেষ ঘটনার কথা উল্লেখ করেছেন এই চিত্রনায়িকা।

ভিডিওটিতে দিব্যাকে সাক্ষাৎকার দিতে দেখা যাচ্ছে। ১৯৯২ সালে ‘গীত’ সিনেমার সেট থেকে এই সাক্ষাৎকারটি নেয়া হয়। দিব্যা ভারতী অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে তার প্রথম দেখা হওয়া নিয়ে কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘এক অনুষ্ঠানে গিয়েছিলাম। আমার বাবা অমিতাভ বচ্চনের পরিচিত ছিলেন, ‘‘ওই হ্যালো, হাই সম্পর্ক’’। সেখানে বাবা আমাকে ওনার (অমিতাভ) সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন। তিনি আমাকে দেখে হাতজোড় করে নমস্কার জানান। ফিরে আসার আগে আমি হাত মেলাই। বাসায় এসে হাত ধুতে গেলে মা বললেন, ‘‘ধুয়ো না! অমিতাভজি হাত মিলিয়েছেন। আগামী ১০ দিন হাত ধুয়ো না।’’ যদিও, আমাকে আমার হাত ধুতে হয়েছিল।’

এরপর দিব্যা বলেন, ‘এখন যখন কেউ হাত নাড়ায়, শুধুমাত্র বোকা বানানোর জন্য আমি বলি, দেখো আমার সঙ্গে হাত মিলিয়েছো, গিয়ে হাত ধুয়ে ফেলো না। নিজের হাতে চুম্বন করো।’

উল্লেখ্য, তামিল সিনেমা ‘নিলা পিন্নে’ দিয়ে অভিনয় জগতে পা রাখেন দিব্যা ভারতী। সেই বছরই তেলুগু সিনেমা ‘ববিলি রাজু’তেও অভিনয় করেন। তারপর তিনি চিরঞ্জীবী, মোহন বাবু ও নন্দামুরি বালাকৃষ্ণের মতো শীর্ষ তেলুগু তারকাদের সঙ্গে কাজ করেন।

এরপর, ১৯৯১ সালে ‘বিশ্বআত্মা’ ছবি দিয়ে বলিউডে অভিনয়ের সূচনা করেন দিব্যা ভারতী। এরপর ১৯৯২ সালে ‘শোলে অউর শবনম’ সিনেমায় গোবিন্দর সঙ্গে কাজ করেন। এছাড়া ঋষি কাপুর ও শাহরুখ খানের সাথে ‘দিওয়ানা’ ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি।

১৯৯৩ সালের ‘ক্ষত্রিয়’ দিব্যার মৃত্যুর আগে মুক্তি পাওয়া শেষ সিনেমা। তার মৃত্যুর পর ‘রঙ’ এবং ‘শতরঞ্জ’ নামে দুটি সিনেমা মুক্তি পায়।

১৯৯৩ সালে মুম্বাইয়ে তার অ্যাপার্টমেন্ট থেকে নিচে পড়ে মারা যান দিব্যা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তিনি মূলত ভারসাম্য হারানোর ফলে ব্যালকনি থেকে নিচে পড়ে যান। তবে তার এই আকস্মিক মৃত্যু দুর্ঘটনাজনিত না হত্যাকাণ্ড তা আজো এক রহস্য।

এমন আরো সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

nineteen − 18 =

সর্বশেষ বিনোদন