সায়নী আটক, এরপর জামিন

অতিরিক্ত গতিতে গাড়ি চালানো এবং ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগে টলিউড অভিনেত্রী ও পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল যুব কংগ্রেসের নেত্রী সায়নী ঘোষকে গ্রেফতার করা হয়েছিলো। তৃণমূলের অভিযোগ, নির্বাচনী সভা পণ্ড করতে পরিকল্পিতভাবে তাকে ফাঁসানো হয়েছে। তবে এরই মধ্যে তিনি জামিনে ছাড়া পেয়ে গেছেন।

তৃণমূল নেতাদের বরাতে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, ২০ নভেম্বর রাতে আগরতলায় পুরভোটের প্রচারণা সেরে হোটেলে ফেরেন তারা। গাড়িতে সায়নী চালকের পাশেই বসেছিলেন। মধ্যরাত থেকে পুলিশ তাদের হোটেল ঘিরে রাখে। গতকাল (২১ নভেম্বর) সকালে পুলিশ হোটেলে ঢুকে জোর করে সায়নীকে থানায় নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক কুণাল ঘোষ আইনি নোটিশ দেখতে চাইলে পুলিশ তা দেখাতে পারেনি বলে দাবি করছে তৃণমূল।

এরপর সন্ধ্যায় সুস্মিতা দেব, কুণাল ঘোষ, অর্পিতা ঘোষ সায়নীকে নিয়ে থানায় গেলে হেলমেট পরা একদল দুষ্কৃতকারী থানা চত্বরে তৃণমূল কর্মীদের ওপর হামলা করে। পুলিশ সায়নীকে ‘হিট অ্যান্ড রান’–এর অভিযোগে গ্রেফতার দেখিয়ে সেলে রাখে। তার সঙ্গে তৃণমূল নেতাদের দেখাও করতে দেয়া হয়নি।

আজ বিকেলে হত্যাচেষ্টা এবং ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্যের অভিযোগ এনে সায়নীকে আগরতলা আদালতে তোলা হয়। পুলিশ সায়নীকে আরও দুইদিন হেফাজতে রাখার আবেদন করলে আদালত তা খারিজ করে দেন।

আগামী ২৫ নভেম্বর ত্রিপুরায় পুরভোট অনুষ্ঠিত হবে। তার আগে আগামীকাল প্রচারণার শেষ দিন। আজ ত্রিপুরায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা বানচাল করতে পরিকল্পনা করেই সায়নীকে গ্রেফতার করা হয়েছিলো বলে দাবি করে তৃণমূল।

টলিউড অভিনেত্রী সায়নী অল্প বয়সেই রাজনীতিতে যুক্ত হন। তিনি ‘কানামাছি’, ‘রাজকাহিনি’, ‘মায়ের বিয়ে’ প্রভৃতি চলচ্চিত্রের পাশাপাশি ‘চরিত্রহীন’, ‘আস্তে লেডিজ’, ‘বউ কেন সাইকো’ ওয়েব সিরিজেও অভিনয় করেছেন।

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

2 × one =

সর্বশেষ বিনোদন