ডায়ানা নেই, আছে তার বিখ্যাত বিয়ের পোশাকটি

প্রদর্শনীতে ডায়ানার বিয়ের পোশাক১৯৮১ সালে প্রিন্স চার্লসের সঙ্গে ডায়ানার বিয়ে হলো, ১৯৯২ সালে তারা আলাদাও হয়ে গেলেন এবং ১৯৯৬ সালে তাদের আনুষ্ঠানিক বিবাহবিচ্ছেদও হয়ে যায়। তারপর ১৯৯৭ সালে তো প্যারিসে এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রিন্সেস ডায়ানা নিহতই হলেন। তারপরও প্রিন্সেস ডায়ানা বিশ্ববাসীর মনে কি কারণে যেন এখনো জীবন্ত। ডায়ানার ব্যক্তিত্বে কিছু একটা ছিল যা মানুষকে আকৃষ্ট করে, মুগ্ধ করে। তাকে নিয়ে জল্পনা-কল্পনার শেষ নেই। এখনো তাকে নিয়ে কথা হয়। তাকে নিয়ে এখনো নানা গল্প ফাঁদা হয়, করা হয় বাহারি সংবাদ।

বিয়ের পোশাকে ডায়ানা

এবার তিনি আলোচনায় এলেন তার বিয়ের পোশাক প্রসঙ্গে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, লন্ডনে ডায়ানার সাবেক বাড়ি কেনসিংটন প্রাসাদে ‘রয়াল স্টাইল ইন দ্য মেকিং’ শিরোনামের একটি প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। প্রদর্শনীর পেছনে আছেন ডায়ানার পুত্র প্রিন্স উইলিয়াম ও হ্যারি। সেই প্রদর্শনীতে প্রদর্শিত হচ্ছে ডায়ানার ২৫ ফুট লম্বা জমকালো বিয়ের পোশাকটি। ১৯৮১ সালে প্রিন্স চার্লসের সঙ্গে বিয়ের সময় এই সাদা রঙের পোশাকটি ডায়ানা পরেছিলেন।

যদিও সেই বিয়ে পরবর্তীতে টেকে তো নয়ই, বরং রাজ-পরিবারের জন্য লজ্জাজনক ঘটনা হিসেবে রয়ে গেল। কেননা প্রিন্সেস ডায়ানা ও প্রিন্স চার্লসের বিরুদ্ধে বিয়ে-বহির্ভূত সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগ ওঠে। তারপর ডায়ানার মৃত্যু নিয়েও তো কত সন্দেহ, অভিযোগ, রহস্য তার হিসেব নেই। ২০০৫ সালে ক্যামিলা পার্কারকে বিয়ে করেন চার্লস। তা নিয়েও তো কত্তো কথা!

বিয়ের সাজে ডায়ানা

যাহোক। এই প্রদর্শনীতে ডায়ানা ছাড়াও ব্রিটিশ রাজ-পরিবারের অনেক নারীর পোশাক প্রদর্শিত হচ্ছে। কিন্তু সবার চোখ ডায়ানার ওই সফেদ বিয়ের পোশাকটির দিকে। গণমাধ্যমগুলোর মনোযোগও ওইখানে। পোশাকটির নকশা করেছিলেন ডেভিড ও এলিজাবেথ ইমানুয়েল। অনেক সময় এটিকে বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও আলোচিত পোশাক হিসেবেও গণ্য করা হয়। প্রদর্শনীর কিউরেটর জানিয়েছেন, এই পোশাকের অনুকরণ করে পরে বহু পোশাক তৈরি হয়েছে।

গত ৩ জুন প্রদর্শনী শুরু হয়। চলবে আগামী বছরের ২ জানুয়ারি পর্যন্ত।

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

1 × 2 =

সর্বশেষ বিনোদন