অনন্তর অন্যরকম লুক

অনন্ত জলিলের সিনেমা মানেই আলোচনা সমালোচনা। আর এসবের রসদ জোগাতেও অনন্তর জুড়ি মেলা ভার। তারই ধারাবাহিকতায় সোমবার দিনের বেলায় অনন্ত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করেন নিজের নতুন ছবির একটি লুক, আর রাতে ছাড়লেন আরেক সিনেমার ট্রেইলার।

সোমবার দিনের বেলা অনন্ত ‘নেত্রী-দ্য লিডার’ সিনেমার নতুন লুকের ছবি প্রকাশ করেন। নিজের গোঁফওয়ালা ছবি প্রকাশ করার সঙ্গে সঙ্গে হইচই পড়ে যায় কমেন্ট বক্সে। অনেকে নতুন লুকের প্রশংসা করছেন। তবে বেশিরভাগ মন্তব্যকারীই অনন্তর লুক নিয়ে লিখেছেন মজার সব মন্তব্য।

দেশি বিদেশি শিল্পী ও কলাকুশলী নিয়ে নির্মিত হচ্ছে ‘নেত্রী- দ্য লিডার সিনেমা। ইরান, তুরস্কের অভিনয়শিল্পীসহ সিনেমায় অভিনয় করছেন ভারতের প্রদীপ রাওয়াত, কাবির দুহান সিং ও তরুণ আরোরা। অনন্ত জলিল ও বর্ষা ছাড়াও দেশ থেকে সিনেমায় অভিনয় করছেন ইলিয়াস কাঞ্চন, কাজী হায়াত, মাহমুদ সাজ্জাদ।২৭ ফেব্রুয়ারি হয় সিনেমাটির মহরত অনুষ্ঠান। রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে অ্যাকশনধর্মী সিনেমা নেত্রী- দ্য লিডার। এর মূল চরিত্রে থাকছেন বর্ষা। অনন্ত জলিল অভিনয় করবেন বর্ষার দেহরক্ষী হিসেবে। সিনেমাটি পরিচালনা করছেন তিনজন। তারা হলেন- ভারতের উপেন্দ্র মাধব, বাংলাদেশের অনন্ত জলিল ও তুরস্কের একজন।

এদিকে সোমবার রাতে অনন্ত প্রকাশ করেছেন মুক্তি প্রতীক্ষিত ‘দিন-দ্য ডে’ সিনেমার নতুন ট্রেইলার। ২ মিনিট ৪০ সেকেন্ডের ট্রেইলারটিতে উঠে এসেছে দুর্ধর্ষ এক অভিযানের গল্প। ট্রেইলারেই জানান দেওয়া হয়েছে ছবিটি মুক্তি পাবে এই বছরের ঈদুল আজহায়।

বাংলাদেশ ও ইরানের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত এই সিনেমায় অনন্ত জলিলের নায়িকা বর্ষা। সিনেমাটি পরিচালনা করছেন ইরানি নির্মাতা মুর্তজা অতাশ জমজম। প্রায় দুই বছর ধরে তৈরি করা হয়েছে ছবিটি। ২০১৮ সালের শেষ দিকে ইরানের ফারাবি ফাউন্ডেশনের সঙ্গে ছবিটি যৌথভাবে প্রযোজনার জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তিবদ্ধ হন অনন্ত। ছবিতে বাংলাদেশ থেকে অনন্ত ও বর্ষার সঙ্গে নবাগত সুমন ফারুকও অভিনয় করছেন। পাশাপাশি ইরান ও লেবাননের বেশ কয়েকজন জনপ্রিয় অভিনেতা-অভিনেত্রীও রয়েছেন।

‘দিন-দ্য ডে’ সিনেমায় অনন্তকে দেখা যাবে আন্তর্জাতিক সংস্থার পুলিশ অফিসারের চরিত্রে। নানারকম ভুল মতবাদে আসক্ত সন্ত্রাসগোষ্ঠিদের দমনে অভিযানে অংশ নিতে দেখা যাবে তাকে। ছবিটিতে ইসলাম ধর্মের সঠিক ও সুন্দর বার্তা তুলে ধরা হবে। ধুন্ধুমার অ্যাকশানে ভরপুর ছবিটিতে থাকবে পারস্য সভ্যতার আমেজ। ২০১৯ সাল থেকে শুটিং শুরু হয় ছবিটির। ইরানের হেরাতের দুর্গম পাহাড় ও মরুভূমি, আফগানিস্তান সীমান্তে শুটিং চলেছে ছবিটির। এছাড়াও ঐতিহাসিক স্থানের জন্য বিখ্যাত দেশটির আরও অনেক লোকেশনই দেখা যাবে এ ছবিতে। পাশাপাশি বাংলাদেশের বুড়িগঙ্গা ব্রিজ, ৩০০ ফিট, হেমায়েতপুরে শিল্প পার্কসহ বিভিন্ন লোকেশনে হয়েছে ছবিটির দৃশ্যায়ন।

এমন আরো সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

four × 5 =

সর্বশেষ বিনোদন