সন্ধ্যার শেষকৃত্য সম্পন্ন

গানের জগৎ থেকে চিরদিনের জন্য ‘ছুটি’ নিলেন কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়। অনেক মনে করেন, তার মৃত্যুর মধ্য দিয়ে বাংলা-সংগীতের এক স্বর্ণযুগের অবসান হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে পিস হেভেনে রাখা হয় সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়ের মরদেহ। আজ (বুধবার) বেলা ১২টা থেকে ৫টা পর্যন্ত ‘গীতশ্রী’র মরদেহ রাখা হয় রবীন্দ্রসদনে। সেখানে প্রিয় শিল্পীকে শ্রদ্ধা জানাতে জড়ো হন অগণিত মানুষ।

আনন্দবাজার পত্রিকার খবর অনুযায়ী, সন্ধ্যা ৬টার কিছু পর কালীঘাটের কেওড়াতলা মহাশ্মশানে রাজ্য সরকারের তত্ত্বাবধানে পূর্ণ মর্যাদায় সন্ধ্যার শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়। এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গান স্যালুটে চিরবিদায় জানানোর পর শিল্পীর দেহ যখন বৈদ্যুতিক চিতায় দগ্ধ হচ্ছিল, তখন ‘আমাদের ছুটি ছুটি’ গানের বাজানো হয়।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ৯০ বছর বয়সী এই কিংবদন্তি। বার্ধক্যজনিত অসুখে ভুগছিলেন তিনি। এরমধ্যে বাড়িতে পড়ে গিয়ে ফিমার বোন ভেঙে গিয়েছিল তার। গত ২৭ জানুয়ারি তাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল এসএসকেএম হাসপাতালে। সেখানে কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসায় দ্রুত তাকে নেয়া হয় অ্যাপোলো হাসপাতালে। সেখানে তার একটি সফল অস্ত্রপচারও হয়েছিল।

কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায় ৫০ বছরের বেশি সময় ধরে বিভিন্ন ভাষার সিনেমায় প্লেব্যাক করেছেন। সিনেমার গানের পাশাপাশি বাংলা আধুনিক গান ও ধ্রুপদী সংগীতে পারদর্শী ছিলেন তিনি। তার কণ্ঠে মুগ্ধ ছিল ভারত-বাংলাদেশের কয়েক প্রজন্ম।

এমন আরো সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

seven − 5 =

সর্বশেষ বিনোদন