ড. স্ট্রেইঞ্জ বনাম ড. স্ট্রেইঞ্জ

গত ১৭ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিকভাবে মুক্তি পেয়েছে মার্ভেল সিনেমাটিক ইউনিভার্সের নতুন চলচ্চিত্র ‘স্পাইডার-ম্যান : নো ওয়ে হোম’। এতে পিটার পার্কারের ‘স্পাইডার-ম্যান’ পরিচয় গোপন করতে গিয়ে তাকে সঙ্গে নিয়ে মাল্টিভার্সের দরজা খুলে দেয় ড. স্ট্রেইঞ্জ, আর অন্য সব দুনিয়া থেকে নানা চরিত্রের আগমন ঘটতে থাকে। এবার মুক্তি পেলো মার্ভেলের পরবর্তী এবং ‘ড. স্ট্রেইঞ্জ’ ফ্র্যাঞ্চাইজির দ্বিতীয় চলচ্চিত্র ‘ড. স্ট্রেইঞ্জ ইন দ্য মাল্টিভার্স অফ ম্যাডনেস’-এর টিজার

গতকাল ২২ ডিসেম্বর মুক্তি পাওয়া এই টিজারে দেখা যায়, ‘স্পাইডার-ম্যান : নো ওয়ে হোম’-এর ঘটনার পর থেকে ‘ড. স্ট্রেইঞ্জ ইন দ্য মাল্টিভার্স অফ ম্যাডনেস’ চলচ্চিত্রের কাহিনী শুরু। টিজারে দেখা যায়, পিটার পার্কারের সঙ্গে মাল্টিভার্স অভিযানে কতটুকু ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা হিসেব করছে ড. স্ট্রেইঞ্জ। কিন্তু মাল্টিভার্স জুড়ে যে জটিলতা নেমে এসেছিলো তা যে শুধু মেটেনি তা-ই নয়, বরং রূপ নিয়েছে এক বিপর্যয়ে। অন্য সব দুনিয়া থেকে দানবেরা ঢুকে পড়েছে স্ট্রেইঞ্জের দুনিয়ায়।

আর এসব ঘটনা ঠেকাতে ‘স্কারলেট উইচ’ ওয়ান্ডা ম্যাক্সিমফ আর সহকর্মী ওয়াংকে নিয়ে লড়াইয়ে নামবে ‘সরসারার সুপ্রিম’ স্ট্রেইঞ্জ। টিজারে প্রথম চলচ্চিত্রে স্ট্রেইঞ্জের সহকর্মী বিপথগামী মরডোকে ফিরতে দেখা গেছে। মাল্টিভার্সের জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি স্ট্রেইঞ্জ নিজেই – এমন এক হুঁশিয়ারি জানায় মরডো। এরপরই দেখা যায়, নিজের এক অশুভ সংস্করণের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে আছে স্ট্রেইঞ্জ।

‘ড. স্ট্রেইঞ্জ ইন দ্য মাল্টিভার্স অফ ম্যাডনেস’ পরিচালনা করছেন ২০০২ সালের ‘স্পাইডার-ম্যান’ ফ্র্যাঞ্চাইজির নির্মাতা স্যাম রেইমি। চিত্রনাট্য লিখেছেন ডিজনি প্লাস টিভি সিরিজ ‘লোকি’র মাইকেল ওয়ালড্রন। চলচ্চিত্রে অভিনয় করছেন বেনেডিক্ট কাম্বারব্যাচ, বেনেডিক্ট ওয়াং, র‍্যাচেল ম্যাক অ্যাডামস, চিওয়েটেল এজিওফল, জোচিটল গোমেজ, এলিজাবেথ ওলসেন সহ আরো অনেকে। ২০২২ সালের মে মাসে চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাবে।

এমন আরো সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

two × two =

সর্বশেষ বিনোদন