‘ডিউন’-এর জন্য স্বীকৃতি পেলেন ভিলনাভ

ফ্র্যাঙ্ক হারবার্টের বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীমূলক উপন্যাস অবলম্বনে হলিউডে নির্মিত ‘ডিউন’ গত ১৫ সেপ্টেম্বর মুক্তি পায়। ডেনিস ভিলনাভ নির্মিত চলচ্চিত্রটি দর্শক-সমালোচকদের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। ১৬৫ মিলিয়ন ডলার ব্যয়ে নির্মিত চলচ্চিত্রটি আন্তর্জাতিক বক্স অফিসে এযাবত ৩৯০ মিলিয়ন ডলার আয় করেছে। এবার এই চলচ্চিত্রের জন্য মার্কিন আর্ট ডিরেক্টর গিল্ডের স্বীকৃতিও পাচ্ছেন নির্মাতা ভিলনাভ। সংগঠনটির আয়োজিত ‘এক্সেলেন্স ইন প্রোডাকশন ডিজাইন অ্যাওয়ার্ডস’-এর ২৬তম আসরে তিনি ‘উইলিয়াম ক্যামেরন মেঞ্জিস’ সম্মাননা জিতেছেন।

রূপালি পর্দায় দৃশ্যকল্প ও গল্পকথনের দিক থেকে বিশেষ প্রতিভার ছাপ রাখেন যেসব নির্মাতা, ‘উইলিয়াম ক্যামেরন মেঞ্জিস’ সম্মাননা তাদের দেয়া হয়। আগামী বছরের ৫ মার্চ লস অ্যাঞ্জেলসে এই পুরস্কার ভিলনাভের হাতে তুলে দেয়া হবে। আর্ট ডিরেক্টরস গিল্ডের সভাপতি নেলসন কোটস এক বিবৃতিতে বলেন, “ভিলনাভের গল্প বলার গোটা প্রক্রিয়াটা এমনভাবে সাজানো, যে এতে কোনো খাদ নেই। পাশাপাশি, এই প্রক্রিয়ার সঙ্গে যারা যুক্ত ছিলেন তাদেরও উঁচুতে তুলে ধরা হয়েছে ভিলনাভের কাজে। শক্তিশালী ও নতুন ধরনের চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য নির্মাতা ও ডিজাইনারদের মধ্যে সহযোগিতার সম্পর্ক গড়ে তোলাটা অপরিহার্য। আর এমন গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়ে ভিলনাভ নিজ দক্ষতা প্রমাণ করেছেন।”

ভিলনাভ এর আগে বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীভিত্তিক চলচ্চিত্র ‘অ্যারাইভাল’-এর জন্য ২০১৭ সালের অস্কারে সেরা নির্মাতা হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছিলেন। এতে চলচ্চিত্রটি আরো আটটি বিভাগে মনোনীত হয়, একটিতে পুরস্কারও জেতে। পরের বছরই অস্কারে ভিলনাভের ‘ব্লেইড রানার ২০৪৯’ দুটি বিভাগে পুরস্কার জেতে। এছাড়াও তার নির্মাণের তালিকায় আছে ‘সিকারিও’ (২০১৫), ‘প্রিজনারস’ (২০১৩) ও ইনসেন্ডিজ’ (২০১০)।

২০২৩ সালের অক্টোবরে ‘ডিউন’ চলচ্চিত্রের সিকুয়েল মুক্তি পাবে। বর্তমানে ভিলনাভের নির্দেশনায় এর নির্মাণকাজ চলছে।

এমন আরো সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

ten − nine =

সর্বশেষ বিনোদন