নির্মাণের আগেই ‘ফ্রিল্যান্স’ নিয়ে হুড়োহুড়ি

হলিউড তারকা ও প্রাক্তন রেসলার জন সিনাকে কেন্দ্রীয় চরিত্রে রেখে নির্মিত হচ্ছে নতুন অ্যাকশন কমেডি চলচ্চিত্র ‘ফ্রিল্যান্স’। ‘টেইকেন’ ফ্র্যাঞ্চাইজির নির্মাতা পিয়ের মোরেলের পরিচালনায় এই চলচ্চিত্রে আগাগোড়াই টানটান উত্তেজনা থাকবে। আগামী বছর থেকে কলম্বিয়ায় চলচ্চিত্রটির শুটিং শুরু হবে। কিন্তু তার অনেক আগেই, এমন চলচ্চিত্রের আবেদন প্রমাণ করতেই যেন চলচ্চিত্রটির স্বত্ত্ব কিনতে হুমড়ি খেয়ে পড়েছে বিশ্বের নানা দেশের বিনোদনভিত্তিক স্টুডিওগুলো।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম হলিউড রিপোর্টার সূত্রে জানা যায়, ইউরোপ ও এশিয়ার বড় কিছু স্টুডিওর সঙ্গে ‘ফ্রিল্যান্স’ সংশ্লিষ্টদের এই সংক্রান্ত চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে। স্টুডিওগুলোর মধ্যে আছে জার্মানির ‘স্প্লেনডিড ফিল্মস’, ইতালি, স্পেন, পর্তুগাল ও লাতিন আমেরিকার জন্য ‘ভারটিস সিনে’, যুক্তরাজ্য, আয়ারল্যান্ড ও স্ক্যান্ডিনেভিয়ার জন্য ‘সিগনেচার এন্টারটেইনমেন্ট’ দক্ষিণ কোরিয়ার জন্য ডিএইচএল স্টুডিওজ, কানাডার ভিবিএস, রাশিয়া ও বাল্টিক অঞ্চলের ‘ভলগা ফিল্মস’, ভারতের ‘এমভিপি’ সহ প্রভৃতি। এছাড়াও অমীমাংসিত হাতেগোনা অঞ্চলগুলোর ক্ষেত্রেও শীঘ্রই চুক্তি হয়ে যাবে বলে মনে করছে চলচ্চিত্রটির প্রযোজনা সংস্থা।

‘ফ্রিল্যান্স’ চলচ্চিত্রে জন সিনা প্রাক্তন এক আর্মি রেঞ্জারের চরিত্রে ভূমিকায় অভিনয় করবেন। অবসরের পর পারিবারিক জীবন নিয়ে বিরক্ত এই চরিত্রকে তার সেনাজীবনের এক সহকর্মী ও বন্ধু বিপজ্জনক এক কাজের প্রস্তাব দেয়, আর তাতে রাজি হয়ে যায় সে। কাজটি হলো, দুর্ধর্ষ এক স্বৈরশাসকের সাক্ষাৎকার নিতে পশ্চিম আমেরিকা যাচ্ছে – এমন একজন সাংবাদিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। এরপর সেখানে সেনাবিদ্রোহ শুরু হলে তাদের বাঁচার লড়াই নিয়েই এই চলচ্চিত্রের গল্প।

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

three + three =

সর্বশেষ বিনোদন