মুক্তিযুদ্ধের গল্পে ভিন্ন প্রেক্ষাপটের ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’

২০১৬ সালে নূরুল আল আতিক পরিচালিত মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’ চলচ্চিত্রের শুটিং শুরু হয়। এরপর মাঝপথে বন্ধ হয়ে যাওয়ায় শুটিং শেষ করতেই লেগে গেছে কয়েক বছর। নানা অনিশ্চয়তা পেরিয়ে অবশেষে পাঁচ বছর পর চলচ্চিত্রটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে।

চ্যানেল আই অনলাইন জানায়, ২০১৪-১৫ অর্থ বছরে সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’ গত ৭ নভেম্বর সেন্সর বোর্ডে বিনা কর্তনে ছাড়পত্র পেয়েছে। ১০ ডিসেম্বর চলচ্চিত্রটি মুক্তি দিতে পারেন নির্মাতা আতিক। তিনি বলেন, “আমাদের দীর্ঘদিনের প্রতীক্ষার অবসান ঘটতে যাচ্ছে। সিনেমাটি আমরা অনেক বেশি মানুষকে দেখাতে চাই। স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে এটা আমাদের নিবেদন।”

পাণ্ডুলিপি কারখানা প্রযোজিত ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন লায়লা হাসান, আহমেদ রুবেল, ভাবনা, অশোক ব্যাপারী, আশীষ খন্দকার, জয়রাজ, শিল্পী সরকার, ইলোরা গওহর, জ্যোতিকা জ্যোতি, দিলরুবা দোয়েল, স্বাগতা, শাহজাহান সম্রাট, খলিলুর রহমান কাদেরী, সদ্য প্রয়াত অনন্ত মুনির, সৈকত, যুবায়ের, অনন্ত, মতিউল আলম, হাসিমুন সহ কুষ্টিয়া, টাঙ্গাইল এবং গৌরীপুর এলাকার সাধারণ মানুষ। পরিচালক নিজেই চলচ্চিত্রের কাহিনি, চিত্রনাট্য ও সংলাপ লিখেছেন।

‘লাল মোরগের ঝুঁটি’ চলচ্চিত্রের প্রেক্ষাপট সম্পর্কে আতিক বলেন, “১৯৭১ সাল। বাংলাদেশ এক বন্দিশালা। বিহারি–অধ্যুষিত ছোট এক শহর। সেখানে ব্রিটিশদের গড়া বিমানবন্দর সচল করতে সেনাবাহিনী আসে। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর উপস্থিতিতে জনপদে ঘটে যাওয়া কাহিনি নিয়ে নির্মিত হয়েছে ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’। আমাদের সিনেমায় মুক্তিযুদ্ধ একরৈখিকভাবে উপস্থাপিত হয়, এর বাইরেও অসংখ্য প্রেক্ষাপট রয়েছে, ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’ তেমন একটি প্রচেষ্টা।’’

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

2 + 11 =

সর্বশেষ বিনোদন