টোকিওতে কসোভোর জয়

গত ৮ নভেম্বর ৩৪তম টোকিও আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের পুরস্কার বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হয়েছে। আর এতে ‘গ্রাঁ প্রি’ পুরস্কার জিতেছে কসোভোর চলচ্চিত্র ‘ভেরা ড্রিমস অফ দ্য সি’। পাশাপাশি চলচ্চিত্রটি টোকিও গভর্নরের পুরস্কারও জিতে নিয়েছে। উৎসবের এই আসরে ১১৩টি দেশের ১ হাজার ৫৩৩টি চলচ্চিত্র জমা পড়েছে।

নারী নির্মাতা কাতরিনা ক্রাসনিচির প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘ভেরা ড্রিমস অফ দ্য সি’। কেন্দ্রীয় চরিত্র ‘ভেরা’ সাধারণ এক নারী, পড়ন্ত বয়সে স্বামীর মৃত্যু যাকে কঠিন সংগ্রামের মুখে ঠেলে দেয়। চলচ্চিত্রে পূর্ব ইউরোপের সদ্য স্বাধীন দেশগুলোর অবক্ষয় আর রূঢ় বাস্তবতা ফুটিয়ে তুলেছেন নির্মাতা। অনুষ্ঠানে ভিডিও বার্তায় ক্রাসনিচি বলেছেন, টোকিও চলচ্চিত্র উৎসবে কসোভোর প্রথম অংশগ্রহণেই পুরস্কার জেতায় তিনি অভিভূত।

গত ৩০ অক্টোবর শুরু হওয়া টোকিও উৎসবের এবারের আসরে মূলভাব ছিলো ভৌগোলিক সীমান্ত, ভাষা, জাতি, বর্ণ, লিঙ্গ সহ সব বৈষম্যের বাধা পেরিয়ে বৈচিত্র্যের সমন্বয়। উৎসবের প্রধান বিচারক আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ফরাসি অভিনেত্রী ইসাবেল ইয়ুপের সমাপনী অনুষ্ঠানে বলেন, মূল প্রতিযোগিতা বিভাগের জন্য বাছাই করা ১৫টি চলচ্চিত্র এই বৈচিত্র্যেরই প্রতিফলন। এবার সরাসরি উপস্থিতির পাশাপাশি অনেক অতিথি, দর্শক ও পুরস্কার বিজয়ী অনলাইনেও অংশ নিয়েছেন।

মূল প্রতিযোগিতা বিভাগে দর্শক ভোটে সেরা চলচ্চিত্র এবং সম্মানসূচক পুরস্কার – এই দুটিই জিতেছে জাপানি পরিচালক মাৎসুই দাইগোর ‘জাস্ট রিমেম্বারিং’। ‘পয়েট’ চলচ্চিত্রের জন্য সেরা পরিচালকের পুরস্কার পেয়েছেন কাজাখস্থানের দারেঝান অমিরবায়েভ।

এছাড়াও এশিয়ান ফিউচার বিভাগে এশিয়া মহাদেশের নবীন পরিচালকেরা – যারা সর্বোচ্চ তিনটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন, তারাই শুধু অংশ নিতে পেরেছেন। এই বিভাগের দশটি চলচ্চিত্রের মধ্যে পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত হয়েছে ইরানি পরিচালক হুসেইন তেহরানির ‘ওয়ার্ল্ড, নর্দার্ন হেমিস্ফেয়ার’।

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

two × three =

সর্বশেষ বিনোদন