‘ইবোনি ব্লেইড’-এর রহস্য

মারভেল স্টুডিওজের ‘এটারনালস’ চলচ্চিত্রের পোস্ট-ক্রেডিট দৃশ্যে ঘটে এক অদ্ভুত ঘটনা। দেখা যায়, কিট হ্যারিংটনের চরিত্র ‘ডেইন হুইটম্যান’ একটি তলোয়ারের সঙ্গে কথা বলছে। এই তলোয়ারের নাম ‘ইবোনি ব্লেড’, আর মারভেল কমিকসে এর লম্বা এক ইতিহাস আছে।

কমিকসে হুইটম্যানের প্রথম আবির্ভাব ঘটে ১৯৬৭ সালে। স্যার পার্সি অফ স্ক্যান্ডিয়া নামের এক ‘ব্ল্যাক নাইট’ সুপারভিলেন তার চাচা। স্যার পার্সি কিংবদন্তি জাদুকর মারলিনের কাছ থেকে ইবোনি ব্লেইড উপহার পায়। চাচার সূত্রেই অস্ত্রটি হুইটম্যানের হাতে আসে। এটারনালস দলের শত্রুশিবিরে ধংসযজ্ঞ চালিয়ে হুইটম্যান এই দলে আমন্ত্রণ পায়। অ্যাভেঞ্জারস এবং ডিফেন্ডারসের সদস্য হিসেবে সে এই অস্ত্রটি ব্যবহারও করে। কিন্তু পরে জানা যায়, ইবোনি ব্লেইডের সঙ্গে আছে এক অভিশাপ – ‘ব্লাড কার্স’। এর মানে, এই তলোয়ার দিয়ে যত রক্ত ঝরানো হবে, এর ব্যবহারকারী ততোই হবে উন্মত্ত।

সাম্প্রতিক কমিকসে অবশ্য ইবোনি ব্লেইডকে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করা হয়। এতে ব্যবহারকারীর নেতিবাচক আবেগকে ব্যবহার করে একে বাড়িয়ে তোলে অস্ত্রটি, সঙ্গে সঙ্গে নিজেও শক্তিশালী হয়ে ওঠে। আর শুধু দূষিত আত্মার অধিকারীরাই তলোয়ারটি ব্যবহার করতে পারে। তাতে অমরত্বও পেয়ে যায় সে। এমন ভয়ঙ্কর এই তলোয়ার, যার জন্মরহস্য গোপন করতে আস্ত শহর ক্যামেলটের পতন ঘটানো হয়েছিলো। এই ইবোনি ব্লেডের সঙ্গে বড় পর্দায় এর মালিক ব্ল্যাক নাইটকে পূর্ণ শক্তিতে দেখা যাবে কিনা, তা হয়তো মারভেল সিনেমাটিক ইউনিভার্সের চতুর্থ পর্যায়ের এক বড় রহস্য হতে যাচ্ছে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম হলিউড রিপোর্টারকে কিট হ্যারিংটন বলেন, তার চরিত্রের ভবিষ্যত সম্পর্কে বিশেষ কিছু জানেন না। তবে কমিকসে দেখা সম্ভাবনাগুলোর কথা তিনি উড়িয়ে দেননি। ‘এটারনালস’ চলচ্চিত্রের পোস্ট-ক্রেডিটে এছাড়াও আসন্ন ‘ব্লেইড’ চলচ্চিত্রের মাহেরশালা আলির কণ্ঠ শোনা গেছে।

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

seventeen + seven =

সর্বশেষ বিনোদন