দুই দশকের যৌন নিপীড়নের পরিণতি

মার্কিন র‍্যাপার ও পপশিল্পী আর কেলির বিরুদ্ধে নারী ও শিশুদের যৌন নিপীড়নে জড়িত থাকার অভিযোগে সত্যতা পেয়েছে আদালত।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানায়, ছয় সপ্তাহ ধরে নয়জন নারী ও দুজন পুরুষ কেলির বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতন ও সহিংসতার অভিযোগে সাক্ষ্য দিয়েছেন। অভিযোগ, জনপ্রিয়তা কাজে লাগিয়ে দুই দশক ধরে যৌন নিপীড়ন চালিয়ে এসেছেন তিনি। শুনানি শেষে ২৭ সেপ্টেম্বর কেলিকে নয়টি অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করেছে আদালত।

যৌন নির্যাতনের পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন রাজ্যে নারী পাচারের আটটি মামলায় এবং প্রতারণার দায়েও কেলিকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। তার ম্যানেজার, নিরাপত্তা রক্ষী এবং অন্যান্য কর্মচারীরা এই অপরাধে কীভাবে তাকে সহযোগিতা করেছে, তাও বিস্তারিত উল্লেখ করা হয়েছে আদালতে। টানা দুই দিন জেরার পর ৫৪ বছর বয়সী কেলি নিজ অপরাধ স্বীকার করে অনুতাপ প্রকাশ করেন। আর ভুক্তভোগীদের উদ্দেশে ভারপ্রাপ্ত মার্কিন অ্যাটর্নি জ্যাকলিন কাসুলিস বলেন, “আপনাদের কথা শোনা হল আর বিচার হল।’’

আদালতে এক নারী লিখিত বিবৃতিতে জানান, কেলি তাকে বন্দী করে মাদক সেবনে বাধ্য করে। এমনকি ধর্ষণও করে। কেলির বিরুদ্ধে অভিযোগ আনার পর ওই নারীকে হুমকি দেওয়া হয়। এরপর থেকে তিনি পালিয়ে বেড়াচ্ছিলেন। আর এখন ভয়হীন জীবনযাপনের জন্য প্রস্তুত তিনি।

‘আই বিলিভ আই ক্যান ফ্লাই’ গান দিয়ে বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন আর কেলি।

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

two × 3 =

সর্বশেষ বিনোদন