আত্মজীবনী লিখছেন সুচন্দা

আত্মজীবনী লেখার ঘোষণা দিয়েছেন সত্তর-আশির দশকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও প্রযোজক কোহিনূর আক্তার সুচন্দা।

গত ১৯ সেপ্টেম্বর কোহিনূর আক্তার সুচন্দার জন্মদিন ছিল। আর এদিনই প্রয়াত ঔপন্যাসিক ও পরিচালক জহির রায়হানের স্ত্রী সুচন্দা জানান, আত্মজীবনী লিখছেন তিনি।

দৈনিক দ্য ডেইলি স্টারকে সুচন্দা বলেন, “লেখার কাজ অনেকদূর এগিয়েছি। আত্মজীবনীতে আমার ছোটবেলা, বেড়ে ওঠা, সিনেমার জীবন ও জহির রায়হানের বিষয়ে লিখছি।”

এই বইয়ের জন্য কয়েকজন প্রকাশক যোগাযোগও করেছেন বলে জানান সুচন্দা। বলেন, “এখনো ঠিক করিনি, কোন প্রকাশনা থেকে বইটা বের করব। যখন সময় পাচ্ছি, একটু একটু করে লিখছি। লেখার বিষয়ে তাড়াহুড়া করছি না। যখন শেষ হবে, তখনই প্রকাশ করব।”

চলচ্চিত্রে সুচন্দার অভিষেক হয়েছিল সুভাষ দত্ত পরিচালিত ‘কাগজের নৌকা’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। এরপর ১৯৬৭ সালে জহির রায়হানের ‘বেহুলা’ চলচ্চিত্রে নায়করাজ রাজ্জাকের সঙ্গে অভিনয় করে তিনি ব্যাপক পরিচিতি পান। ‘আনোয়ারা’, ‘দুই ভাই’, ‘মনের মতো বউ’, ‘সখিনা’, ‘যে আগুনে পুড়ি’, ‘সংসার’, ‘প্রতিশোধ’, ‘অশ্রু দিয়ে লেখা’, ‘চাওয়া পাওয়া’, ‘অন্তরঙ্গ’ ও ‘ধীরে বহে মেঘনা’ সুচন্দার আরও কয়েকটি উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র।

অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজক হিসেবেও সফল সুচন্দা। সত্তরের দশকে বাবুল চৌধুরীর ‘টাকা আনা পাই’ ও ‘প্রতিশোধ’, আশির দশকে শিবলী সাদিকের ‘তিন কন্যা’ ছাড়াও ‘বাসনা’, ‘প্রেমপ্রীতি’, ‘সবুজ কোট কালো চশমা’ এবং সর্বশেষ ২০০৫ সালে ‘হাজার বছর ধরে’ সিনেমা প্রযোজনা করেছিলেন তিনি।

চলচ্চিত্রে অসামান্য অবদানের জন্য সুচন্দা ২০১৯ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে আজীবন সম্মাননা পেয়েছেন। এর আগে ২০০৮ সালে প্রযোজক হিসেবেও জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিলেন।

পূর্বের খবরগুলোহলে সিনেমা বাড়বে অক্টোবরে
পরবর্তী খবরগুলোইতিহাস বিকৃতির অভিযোগ

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

thirteen − 9 =

সর্বশেষ বিনোদন