সায়রা বানু ভালো নেই, তবে স্থিতিশীল

সায়রা বানু

ভারতীয় সিনেমার সদ্য প্রয়াত কিংবদন্তি অভিনেতা দিলীপ কুমারের সহধর্মিনী অভিনেত্রী সায়রা বানু ভালো নেই। তিনি হৃদরোগে ভুগছেন। চিকিৎসার জন্য তাকে মুম্বাইয়ের হিন্দুজা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই হাসপাতালেই ভর্তি ছিলেন দিলীপ কুমার।

আইসিইউতে রাখলেও সায়রার অবস্থা স্থিতিশীল আছে। বুধবার তার চিকিৎসকেরা তার অবস্থার কথা সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন। সায়রা বানুর ঘনিষ্ঠ—ফয়সাল ফারুকী ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোকে জানিয়েছেন, ভয়ের কিছু নেই। বুকের ব্যথার কারণে তিন দিন আগে সায়রা বানুকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি আরো জানিয়েছেন, দিলীপ কুমারের মৃত্যুর পর সায়রা অনেকটা ভেঙে পড়েছেন।

গত ৭ জুলাই ‘ট্র্যাজেডি কিং’ দিলীপ কুমার শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার বয়স হয়েছিল ৯৮ বছর। তিনি বার্ধক্যজনিত না সমস্যায় ভুগছিলেন। তার প্রয়াণে সাংস্কৃতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে আসে। মুম্বাইয়ের জুহু কবরস্থানে তার মরদেহ দাফন করা হয়।

সায়রা বানু অভিনীত প্রথম হিন্দি সিনেমা ‘জংলি’ (৯১৬১)। তার বিপরীতে ছিলেন শাম্মি কাপুর। সায়রা জনপ্রিয় হন ‘পড়োশন’ (১৯৬৮), ‘হেরা ফেরি’ (১৯৭৬), ‘দিওয়ানা’ (১৯৬৭) ‘পূরব অর পশ্চিম’ (১৯৭০) ইত্যাদি ছবি দিয়ে। তিনি ষাটের দশকে সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক নেয়া চিত্রনায়িকা ছিলেন। ১৯৬৬ সালে বিয়ে করেন সেসময়ের অনেকের ‘স্বপ্নের রাজকুমার’ দিলীপ কুমারকে। তখন সায়রার বয়স ২২। তাদের কোনো সন্তান নেই। বিয়ের পরে আরো এক দশক অভিনয় করেন তিনি। একাধিকবার সেরা অভিনেত্রী হিসেবে ‘ফিল্মফেয়ার’ পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পেয়েছেন।

 

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

two + 6 =

সর্বশেষ বিনোদন