মায়ের সঙ্গে দূরত্ব ট্যারান্টিনোর

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে মুখ খুলেছেন হলিউড নির্মাতা কোয়েন্টিন ট্যারান্টিনো। কথা বলেছেন মায়ের সঙ্গে তার সম্পর্কের টানাপোড়েন নিয়ে।

ট্যারান্টিনো জানান, ছোটবেলায় পড়াশোনায় বিশেষ ভালো ছিলেন না তিনি। বরং তাঁর আগ্রহ ছিল স্ক্রিপ্ট লেখায়। মায়ের তাতে চরম আপত্তি – ট্যারান্টিনোর লেখালেখির স্বভাব নিয়ে তাচ্ছিল্য করতেন তিনি। মায়ের এমন আচরণে ভীষণ কষ্ট পেতেন ট্যারান্টিনো। ভেবে রেখেছিলেন, লেখালেখিতে সাফল্য পেলে মাকে নিজের অর্জিত অর্থের থেকে একটি পয়সাও দেবেন না তিনি। নিজের বাড়িতেও রাখবেন না।

ছেলেবেলার সেই অভিমান বড় হয়েও ধরে রেখেছেন কিনা – পডকাস্টের সাক্ষাৎকারে জিজ্ঞেস করেন উপস্থাপক ব্রায়ান কোপেলম্যান। জবাবে ট্যারান্টিনো বলেন, “ট্যাক্সের ঝামেলা মিটিয়েছি। তবে গাড়ি বা বাড়ি কিনে দেইনি।“

উপস্থাপক কোপেলম্যান মায়ের সঙ্গে অভিমান ভুলে যেতে ট্যারান্টিনোকে অনুরোধ করেন। মায়ের তাচ্ছিল্য হয়তো তাঁর সাফল্যে একটি প্রভাবক ছিল – এই সম্ভাবনা একেবারেই উড়িয়ে দেন ট্যারান্টিনো। তিনি বলেন, “সন্তানকে বলা প্রতিটি শব্দই ভেবে বলা উচিত। সন্তানের কাছে যা প্রিয়, তা নিয়ে তাচ্ছিল্য করা উচিত নয়।“

জনপ্রিয় এই হলিউড নির্মাতা ও অভিনেতা ২০১৯ সালে মুক্তি দিয়েছেন ‘ওয়ানস আপন আ টাইম ইন হলিউড’ চলচ্চিত্রটি। এছাড়াও তাঁর পরিচালনায় নির্মিত হয়েছে ‘রিজারভয়ার ডগস’ (১৯৯২), ‘পালপ ফিকশন’ (১৯৯৪), ‘কিল বিল : ভলিউম ১’ (২০০৩) ও ‘ভলিউম ২’ (২০০৪), ‘গ্রিন্ডহাউজ : ডেথ প্রুফ’ (২০০৭), ‘ইনগ্লোরিয়াস বাস্টারডস’ (২০০৯), ‘দ্যা হেইটফুল এইট’ (২০১৫) চলচ্চিত্রগুলো।

এমন আরো সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

5 + seventeen =

সর্বশেষ বিনোদন