কতো টাকার মালিক কার্তিক

বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে কোনো গড ফাদার ছাড়াই নিজের অস্তিত্ব টিকিয়ে রেখেছেন অভিনেতা কার্তিক আরিয়ান। কেউ তাকে জায়গা করেও দেয়নি। বলা চলে প্রথম সারির তারকাদের মতোই সাফল্য অর্জন করেছেন তিনি। কার্তিক আরিয়ান নামীদামি সব ব্র্যান্ডের মডেল। তার করা ছবিগুলোও ব্যবসায়িকভাবে সফল। অনেক কষ্টেই এতো দূর উঠে এসেছেন তিনি।

সাধারণ এক মধ্যবিত্ত পরিবারে বড় হয়েছেন কার্তিক। সে কারণেই হয়তো ঠান্ডা মাথার ছেলে তিনি। কত কিছু ঘটল ক‍্যারিয়ারে, টু শব্দটিও করেননি কার্তিক। বিতর্ক, নেতিবাচক খবর, কুৎসা—কিছুই উত্তপ্ত করতে পারেনি তাকে। কখনো কোনো নায়িকার সঙ্গে প্রেমের গুঞ্জন রটেছে। আবার কখনো বড় প্রযোজক ছুড়ে ফেলেছেন তাকে। প্রতিটি ঘটনায় বিনীত ছিলেন কার্তিক। বড় বড় প্রোজেক্ট থেকে বেড়িয়ে এসেও তার কোনো প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। মজার ব‍্যাপার হলো, এত ঝড়ঝাপ্টায় ভক্তরা ছেড়ে যায়নি তাকে। তারাই ছিলেন কার্তিকের প্রধান শক্তি।

সাফল‍্যের সঙ্গে হাত ধরাধরি করে কার্তিকের হয়েছে কোটি টাকার বাড়ি–গাড়ি। বাড়িতে এসেছে টাকা। ভারসোভাতে কার্তিক কিনেছেন দেড় কোটি রুপির বাড়ি। নানা রকমের গাড়ির শখ আছে তার। গ‍্যারেজে সদর্পে দাঁড়িয়ে থাকে একটি রয়্যাল এনফিল্ড বাইক, বিএমডব্লিউ ৫ সিরিজের গাড়ি এবং একটি মিনি কুপার। সম্প্রতি ৩ কোটি রুপি দিয়ে কিনেছেন একটি ল্যাম্বরগিনি উরুস। কার্তিকের মোট সম্পত্তির পরিমাণ এখন প্রায় ৩৬ কোটি রুপি।

ভারতের মধ্যপ্রদেশের গোয়ালিয়র শহরে জন্ম কার্তিকের। স্কুলের খাতায় তার নাম কার্তিক তিওয়ারি। মা–বাবা দুজনেই ডাক্তার। তারা চেয়েছিলেন ছেলেও ডাক্তার হবেন। কিন্তু কার্তিক ভর্তি হলেন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে।

পড়াশোনার পাশাপাশি শুরু করলেন মডেলিং, তারপর সিনেমাপাড়ায় ঘোরাঘুরি। তিন বছর বেশ কষ্ট করে ২০১১ সালে করলেন ‘পেয়ার কা পঞ্চনামা’। ডাক্তার হতে না পারলেও, মানুষের প্রিয় হতে পেরেছেন তিনি। তবে বাবা-মায়ের স্বপ্ন পূরণ করেছেন তার বোন কৃতিকা তিওয়ারি। ডাক্তার হয়েছেন তিনি। কার্তিকের হাতে এখন রয়েছে বেশ কয়েকটি সিনেমা। ‘ধমাকা’, ‘ভুল ভুলাইয়া টু’ ছবি দুটি রয়েছে সেই তালিকায়।

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

fourteen − six =

সর্বশেষ বিনোদন