বাড়ছে না নেটফ্লিক্স-এর গ্রাহক

গতবছর করোনাকালে বিশ্বখ্যাত ভিডিও স্ট্রিমিং প্লাটফর্ম নেটফ্লিক্স-এর গ্রাহক হুহু করে বাড়তে শুরু করে। কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধে দেশে দেশে তখন লকডাউন চলছিল, মানুষও ভয়ে ঘর থেকে কম বেরিয়েছে—এসব কারণে নেটফ্লিক্স-এর কদর হুট করে বেড়ে যায়। কিন্তু সংবাদমাধ্যম ভ্যারাইটি বলছে, এ বছরটি ভালো যাচ্ছেন না মার্কিন এই প্রতিষ্ঠানটির। অবিশ্বাস্য শোনালেও সত্যি—নেটফ্লিক্স-এর গ্রাহক প্রত্যাশা অনুযায়ী বাড়ছে না। চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিক অর্থাৎ এপ্রিল থেকে জুনের হিসাব তাই বলছে।

আরেক সংবাদমাধ্যম সিএনবিসি বলছে, নেটফ্লিক্স-এর প্রত্যাশা ছিল, এবছরের এপ্রিল থেকে জুনের মধ্যে নেটফ্লিক্স-এ যোগ হবে ১ দশমিক ৭৫ মিলিয়ন গ্রাহক। কিন্তু সে লক্ষ্য পূরণ হয়নি, যোগ হয়েছে ১ দশমিক ৫৪ মিলিয়ন গ্রাহক। গত বছরের তুলনায় যা অনেক কম। নেটফ্লিক্স-এর সবচেয়ে বেশি গ্রাহক যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায়। এই দুই দেশেই মার খেলো সে। এই খবর প্রকাশিত হওয়ার পর এই কোম্পানির শেয়ারের দামও এক শতাংশ পড়ে যায়। ২০২০-এর এপ্রিল-জুনের তুলনায় গ্রাহক কম বেড়েছে ঠিকই, কিন্তু ২০১৯-এর এপ্রিল-জুনের তুলনায় বেড়েছে ১৭ শতাংশ।

বিনিয়োগকারীদের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে নেটফ্লিক্স বলেছে, ‘গ্রাহক সংখ্যা বাড়ানোর পথে কোভিড-১৯ প্রতিবন্ধকতা তৈরি করছে।…আমরা সেবার মান উন্নয়নে আরো মনোযোগ দিচ্ছি এবং গ্রাহকদের সামনে হাজির করছি বিশ্বের সব ভালো গল্পগুলো।’ করোনাকালের দোষ দেয়া হলো ঠিকই, কিন্তু গতবছরের করোনাকালেই তো নেটফ্লিক্স রেকর্ডভাঙা ব্যবসা করলো! বর্তমানে বিশ্বজুড়ে এর গ্রাহক সংখ্যা ২০৯ মিলিয়ন।

নেটফ্লিক্স জানিয়েছে, তারা গত সাত মাসে ভিডিও কন্টেন্টের পেছনে ৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার খরচ করেছে। বছর শেষে সে খরচ দাঁড়াবে ১২ বিলিয়ন ডলার। জুলাই থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে ৩ দশমিক ৫ মিলিয়ন গ্রাহক পাওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করছে নেটফ্লিক্স। কিন্তু বিনিয়োগকারীরা চান ৫ দশমিক ৪৬ মিলিয়ন গ্রাহক।

বার্তা সংস্থা এপি বলছে, গ্রাহক বাড়াতে নেটফ্লিক্স-এ ভিডিও গেম সার্ভিস যুক্ত করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। বর্তমান সাবস্ক্রিপশনেই কোনো বাড়তি খরচ ছাড়া গ্রাহক এই সেবা উপভোগ করতে পারবেন বলেও জানিয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই ভিডিও স্ট্রিমিং সার্ভিস। ২০২০ সালটি ছিল তাদের সোনালি সময়। সেবছর শুধু জানুয়ারি থেকে জুনের মধ্যেই ২৬ মিলিয়ন নতুন গ্রাহক তৈরি হয়েছিল। আর ২০১৩ সালের পর এখন নেটফ্লিক্স-এর জন্য সবচেয়ে খারাপ সময় যাচ্ছে। প্রতিযোগিতা বেড়ে যাওয়াও খারাপ সময়ের অন্যতম প্রধান কারণ।

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

13 − ten =

সর্বশেষ বিনোদন