‘মিষ্টি মেয়ে’র জন্মদিন আজ

কবরী

আজ বাংলা সিনেমার ‘মিষ্টি মেয়ে’ হিসেবে পরিচিত কিংবদন্তি অভিনেত্রী কবরীর আজ জন্মদিন। তবে এবারের জন্মদিন মলিন। যাকে ঘিরে আনন্দ-উল্লাস হওয়ার কথা—তিনিই নেই। এবছরই লাখো ভক্তদের মাঝ থেকে তাকে কেড়ে নিয়েছে কোভিড-১৯। করোনা আক্রান্ত কবরীকে গত ৮ এপ্রিল শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালের আইসিইউ-তে নেয়া হয়। ১৫ এপ্রিল বিকেলে তাকে লাইফ সাপোর্ট রাখতে হয়। অবশেষে ১৬ এপ্রিল তিনি মারা যান।

১৯৫০ সালে চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে জন্মগ্রহণ করেন। তার আসল নাম মিনা পাল। বাবা শ্রীকৃষ্ণদাস পাল ও মা লাবণ্য প্রভা পাল। ১৯৬৪ সালে সুভাষ দত্তের ‘সুতরাং’ দিয়ে চলচ্চিত্রে কবরীর যাত্রা শুরু। ১৯৬৫ সালে ‘জলছবি’ ও ‘বাহানা’য়, ১৯৬৮ সালে ‘সাত ভাই চম্পা’, ‘আবির্ভাব’, ‘বাঁশরি’ এবং ‘যে আগুনে পুড়ি’ সিনেমায় অভিনয় করেন। আর থেমে থাকেননি, ১৯৬৯ সালে ‘ময়নামতি’, ১৯৭০ সালে ‘দীপ নেভে নাই’, ‘দর্পচূর্ণ, ‘ক খ গ ঘ ঙ’, ‘বিনিময়’ ছবিতে অভিয়ন করেন তিনি। ১৯৭৩ সালে ঋত্বিক ঘটক পরিচালিত ‘তিতাস একটি নদীর নাম’ সিনেমায় অভিনয় করা কবরীর জন্য ছিল বড় টার্নিং পয়েন্ট। একই বছর রাজ্জাকের সঙ্গে ‘রংবাজ’, ১৯৭৫ সালে ফারুকের সঙ্গে ‘সুজন সখী’ এবং ১৯৭৮ সালে ‘সারেং বউ’ সিনেমায় অভিনয় করে কবরী তুমুল জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন।

১৯৭৮ সালে ‘সারেং বউ’ সিনেমার জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী এবং ২০১৩ সালে আজীবন সম্মাননা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন কবরী। মোট ছয়বার পেয়েছেন বাচসাস পুরস্কার। ২০১৬ সালে পান মেরিল-প্রথম আলো আজীবন সম্মাননা পুরস্কার। ২০০৯ সালে কবরী আওয়ামী লীগের মনোনয়নে নারায়ণগঞ্জ থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

8 − five =

সর্বশেষ বিনোদন