পর্নো ছবি বানিয়ে গ্রেফতার শিল্পার স্বামী রাজ কুন্দ্রা

পর্নো ছবি বানানোর অভিযোগে অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেফতার করেছে মুম্বাই পুলিশ। রাজের বিরুদ্ধে অভিযোগ, পর্নো বানানোর পাশাপাশি তিনি তা বিশেষ অ্যাপের মাধ্যমে ছড়িয়ে দিতেন মুঠোফোনে।

এ বিষয়ে মুম্বাই প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ২০২১-এর ফেব্রুয়ারিতে প্রশাসনের সাইবার অপরাধ দমন শাখায় পর্নো তৈরি এবং কিছু অ্যাপের মাধ্যমে তা ছড়িয়ে দেয়া নিয়ে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছিল। সেই মামলার ভিত্তিতেই রাজ কুন্দ্রাকে ১৯ জুলাই (সোমবার) মধ্যরাতে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রশাসন আরো জানিয়েছে, ঘটনার মূল ষড়যন্ত্রকারী রাজ। সে সম্পর্কে যথেষ্ট তথ্য-প্রমাণ হাতে রয়েছে মু্ম্বাই পুলিশের।

আগেই সেই মামলায় উমেশ কামাত নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। যিনি নিজের বয়ানে দাবি করেছেন যে তিনি কুন্দ্রার সংস্থায় কাজ করতেন। এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, মুম্বাইয়ের ভাসিতে থাকেন কামাত। গত ৬ ফেব্রুয়ারিতে গ্রেফতার হওয়া এক মডেল এবং অভিনেত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের সময় কামাতের নাম উঠে এসেছিল। ব্রিটেনের একটি সংস্থায় সমন্বয়কারী হিসেবে কাজ করতেন কামাত। যিনি ওই মডেলের কাছ থেকে অশ্লীল ভিডিও নিতেন। সেগুলো পাঠিয়ে দিতেন ঐ ব্রিটেনের সংস্থার কাছে। তারপর সেই ভিডিওগুলি ‘হটশটস’ নামে একটি অ্যাপে আপলোড করা হতো।

হিন্দুস্তান টাইমস-এর খবর, গ্রেফতারের আগে অর্থ পাচার কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িত থাকার অপরাধে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট তলব করে তাকে। প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালে মৃত গ্যাংস্টার ইকবাল মির্চির সঙ্গে অর্থ পাচার কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অভিযোগ ছিল রাজের বিরুদ্ধে। তারই তদন্তে তাকে সমন পাঠানো হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে।

প্রতিবেদনটিতে আরো বলা হয়েছে , গত ৪ ফেব্রুয়ারি পর্নো ছবি তৈরির সেই চক্রের কীর্তি ফাঁস হয়ে গিয়েছিল। মালাডের (ওয়েস্ট) মাধ এলাকার একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়েছিলেন মুম্বই পুলিশের প্রোপার্টি সেলের এক কর্মকর্তা। ওয়েব সিরিজ এবং শর্ট ফিল্মে কাজ দেয়ার নামে তরুণ-তরুণীদের ফাঁসানোর অভিযোগে পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। ধৃত পাঁচজনকে জিজ্ঞাসাবাদের পর ওই মডেলকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। এছাড়া বাড়িটি থেকে ৫.৬৮ লাখ রুপির সামগ্রী উদ্ধার করেছিল পুলিশ। যা ভিডিও তৈরির জন্য ব্যবহৃত হতো।

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

four × five =

সর্বশেষ বিনোদন