বিখ্যাত শাহরুখের বিখ্যাত বাড়ি ‘মান্নাত’

বলিউড ‘বাদশাহ’ শাহরুখ খান সম্পর্কে কে না জানে! হতে পারে কারো জানা কম, কারো জানা বেশি। কিন্তু জানেনই না—এমন লোক পাওয়া কঠিন। আর যদি পাওয়া যায়ও তাকে নির্দ্বিধায় অষ্টম আশ্চর্য হিসেবে ধরে নেয়া যায়। যাহোক, শাহরুখের আলাপ রেখে শাহরুখের বাড়ি নিয়ে কথা বলা যাক। এই সুপারস্টারের আলিশান বাড়ির নাম ‘মান্নাত’। তিন সন্তানকে নিয়ে এই বাড়িতেই থাকেন শাহরুখ-গৌড়ী। মান্নাত অর্থ—চাওয়া বা প্রার্থনা। শাহরুখের চেয়ে বেশি না হলেও—বেশ বিখ্যাত এই বাড়ি। মুম্বাইয়ের বিলাসবহুল বাড়িগুলোর একটি ‘মান্নাত’। শুধু এ অঞ্চলেই নয়—মান্নাত নিয়ে চর্চা পশ্চিমেও হয়।

গতানুগতিক প্রাসাদের মতো নয় এই বাড়ি। আধুনিক স্থাপত্যরীতিতে গড়া মান্নাত। একালে রাজারা থাকলে নির্ঘাত এধরণের বাড়িই করতেন। বাড়িটি তৈরিতে ব্যয় হয়েছে ২৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার! এর নির্মাণ কাজ শেষ করতে প্রায় ১০ বছর সময় লেগেছিল। স্বপ্নের বাড়ি—সময় তো লাগবেই! বাড়িটি মুম্বাইয়ের ব্যান্ডস্ট্যান্ডে—সমুদ্রের পাড়ে সগৌরবে দাঁড়িয়ে আছে। আরে! ‘কিং খান’-এর বাড়ি বলে কথা! তার বাড়ি দেখেও তো ভক্তদের মনে সম্ভ্রম জাগা চাই!

শাহরুখ-গৌড়ী

বাড়িটি যেখানে দাঁড়িয়ে—সেখানেই মনের মতো বাড়ি করবেন এই সিদ্ধান্ত ‘রইস’ নিয়েছিলেন প্রায় ২৪ বছর আগে। ভোগ ইন্ডিয়া বলছে, তখন শাহরুখ ‘ইয়েস বস’ সিনেমা করছিলেন। ১৯৯৭ সালে জায়গাটি পছন্দ হলেও তা তিনি কেনেন ২০০১ সালে। তখন এখানে একটি কুড়ি দশকের স্থাপত্যশৈলীর একটি ৬ তলা ভবন ছিল। নাম—‘ভিলা ভিয়েনা’। ইয়েস বস সিনেমায়ও বাড়িটির একঝলক আছে। সেই পুরোনো বাড়িটিতেই উঠে পড়েন শাহরুখ-গৌড়ী দম্পতি। তারপর স্থপতি কাইফ ফাকুইয়ের সহযোগিতায় ১০ বছরে তিলে তিলে গড়ে ওঠে মান্নাত, যতদিন পর্যন্ত গৌড়ী খানের মন না ভরেছে—ততদিন মান্নাতের কাজ চলেছে। মূল ভবনের সামনে পুরোনা প্রাসাদের মতো সফেদ রঙের বাড়িটিও অটুট রাখা হয়েছে। তাই মান্নাতে অতীতের ঐতিহ্য এবং আধুনিক স্থাপত্য ভাবনার মেলবন্ধন ঘটেছে। সেই মান্নাত এখন মুম্বাইয়ের অন্যতম দর্শনীয় স্থান।

ভোগ ইন্ডিয়াকে গৌড়ী জানিয়েছেন, মান্নাতের প্রতিটি কোণা যত্নের সঙ্গে তৈরি ও সাজানো হয়েছে। তিনি আরো বলেছেন, এই বাড়ি একই সঙ্গে প্রাইভেসি দেয় আবার শাহরুখকে তার ভক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ করতেও সুযোগ করে দেয়। এই বাড়ির অন্যতম মনকাড়া জায়গা—বিশাল ছাদ। ভেতরটা মিনিমালিস্টিক ভাবনা থেকে সাজানো। ভেতরে ঢুকলেই বিলাসিতার অনুভূতি মেলে। ইন্টেরিয়ারে ব্যবহৃত হয়েছে কালো কাঠের মেঝে, ক্রিস্টাল ঝাড়বাতি এবং অনেক দামি কার্পেট। ঘরভর্তি নানা জিনিস। বছরের পর বছর এই বলিউড দম্পতি দেশ-বিদেশ থেকে এসব সংগ্রহ করেছেন। গণেশ এবং লাইফ-সাইজ রাধাকৃষ্ণের ভাস্কর্য সবার নজর কাড়ে। বাড়িতে আছে বক্সিং রিং, টেবিল টেনিস খেলার জায়গা, জিম, লাইব্রেরি, বাগান, সুইমিংপুল, হল রুম ইত্যাদি।

হাজারো শাহরুখ ভক্ত প্রতিদিন এই বাড়ির সামনে এসে দাঁড়ায়—একবার যদি প্রাণপ্রিয় হিরোর একঝলক দেখার সুযোগ হয়! অনেকে আসেন শুধু এই তাক লাগানো বাড়িটি দেখতে। শাহরুখ তার প্রতি জন্মদিনে মান্নাতের বারান্দা থেকে ভক্তদের দেখা দেন।

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

14 + 2 =

সর্বশেষ বিনোদন