বব ডিলানের ৮০

২৪শে মে ২০২১ নোবেল বিজয়ী কিংবদন্তি বব ডিলানের ৮০তম জন্মবার্ষিকী। যার সুর ও গান তরুণ প্রজন্মের গায়কদের মাঝে আলো ছড়ায় এমন গায়ক হিসেবে তাকে আমরা জানি। তারকাদের ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে কমবেশি সকলেরই আগ্রহ রয়েছে। আর সে যদি গুণি সংগীতশিল্পী বব ডিলান হন তাহলে তো ইচ্ছেটা আরও দ্বিগুন বেড়ে যাবে। সেই উৎসাহ থেকে আসুন জেনে নেই তার সম্পর্কে জানা-অজানা অনেক কিছু।

বব ডিলানের আসল নাম কি?
প্রশ্ন জাগতেই পারে। আমাদের প্রত্যকেরই কমবেশি এমন কিছু নাম থাকে যা পরিবার থেকে পাওয়া। আবার অনেকের থাকে নিজের তৈরি করা নামও। বব ডিলানের আসল নাম হলো রবার্ট অ্যালেন জিবেরম্যান। লোকগানের প্রতি ববের বেশ ঝোঁক ছিল। বিভিন্ন শহরে ঘুরে বেড়াতেন। একবার ডিনকিটাউন এলাকায় একক পারফর্মার হিসেবে মঞ্চ ওঠেন। সেখানেই প্রথমবার নাম গোপন করে গান গেয়েছিলেন। বব ছিলেন কবি ডিলান টমাসের ভক্ত। তাই নিজের নাম পরিবর্তন করে নাম রাখলেন বব ডিলান।

গায়ক না বাদক কোনটাতে তার জনপ্রিয়তা?
১৯৬০ সালে প্রথমবার পেশাদার হিসেবে রেকর্ডিং শুরু করেন। তবে সেটা গায়ক হিসেবে নয়, একজন হারমোনিয়াম বাদক হিসেবে হ্যারি বেলাফন্টির অ্যালবামে অংশগ্রহণ করেছিলেন তিনি। সর্বপ্রথম সেই কাজের জন্য পেয়েছিলেন ৫০ ডলার।

বব ডিলানের ব্যক্তিগত জীবন
তিনি দুটি বিয়ে করেছিলেন। প্রথম স্ত্রীর নাম ছিল সারা লোন্ডস। দ্বিতীয় বিয়েটি করেছিলেন গোপনে, যিনি ছিলেন একজন নেপথ্য কণ্ঠশিল্পী। যার নাম ছিল কারোল ডেনিসকে। প্রথম স্ত্রীর ঘরে তাদের চার সন্তান ছিল এবং কারোল ডেনিসের ঘরে একটি কন্যা সন্তান।

ভয়ংকর দূর্ঘটনা
বব ডিলান ১৯৬৬ সালে নিউ ইয়র্কের উডস্টকে নিজ বাড়ির সামনে মোটরসাইকেলে ভয়ংকর দূর্ঘটনার শিকার হয়েছিলেন। এই দূর্ঘটনায় তিনি মানসিক ও শারীরিকভাবে বিরাট ক্ষতিগ্রস্ত হন। যার ফলে টানা দু’বছর তিনি জনসাধারণের সম্মুখীন হননি।

নোবেল সমালোচনা
সুইডিশ একাডেমি বব ডিলানকে ২০১৬ সালে ১৩ মে সাহিত্যে নোবেল পুরষ্কার বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা দিয়েছিল। বব ডিলান পৃথিবীর প্রথম গীতিকার যিনি নোবেল পুরষ্কারে ভূষিত হন। তবে পুরষ্কার নিয়ে নানা সমালোচনা উঠে আসলে ডিলান তিন মাস পর এটি গ্রহণ করেন। সুইডিশ এর মতে, যুক্তরাষ্ট্রের সংগীত ঐতিহ্যে নতুন এক ধারা সৃষ্টি করেছেন তিনি।

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

six − three =

সর্বশেষ বিনোদন