বাবা-মার হাতে খুন চলচ্চিত্র পরিচালক

প্রতিটি সন্তানের কাছেই তার বাবা-মা সবচেয়ে নিরাপদ আশ্রয়। কিন্তু ইরানি চলচ্চিত্র পরিচালক বাবাক খোরামদিনের ক্ষেত্রে বিষয়টা ঠিক উল্টে গেল। বাবা-মায়ের হাতেই নৃশংস ভাবে খুন হলেন তিনি।

বিয়ে করতে রাজি না হওয়ার জেদই তার মৃত্যুর কারণ হল। হিন্দুস্তান টাইমস-এর তথ্যমতে, পশ্চিম তেহরানের একবাতান এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয় বাবাকের দ্বিখণ্ডিত মরদেহ। তার ঠিক পরপরই তার বাবা-মাকে গ্রেফতার করা হয়। স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমেরর বরাতে জানা গেছে, তেহরান ক্রিমিনাল কোর্টের প্রধান মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেছেন, প্রাথমিক জেরায় পরিচালকের বাবা হত্যার দায় স্বীকার করেছেন এবং বলেছেন, ‘আমার ছেলে বিয়ে করেনি। ও আমাদের হেনস্তা করত… এতে সমাজে আমাদের সম্মানহানি হচ্ছিল। তাই আমি ও আমার স্ত্রী এই সিদ্ধান্ত নিই। আমরা ওর থেকে মুক্তি চেয়েছিলাম যাতে আমাদের সম্মানে আর দাগ না লাগে।’ তিনি আরো বলেন, ‘এই কাজের জন্য আমাদের কোনো অনুশোচনা নেই।’ অভিযুক্ত দুজন জেল হেফাজতে আছেন।

উল্লেখ, পরিচালক বাবাক খোরামদিন ‘কেরেভিসে’ (Crevice), ‘ওথ টু ইয়াশার’ (Oath to Yashar) নামের দুইটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছিলেন। ২০০৯ সালে তেহরান বিশ্ববিদ্যালয়ের  ‘ফ্যাকাল্টি অফ ফাইন আর্টস’ থেকে সিনেমায় স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন বাবাক।

এমন আরও সংবাদ

রিপ্লাই দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন

10 + fifteen =

সর্বশেষ বিনোদন