অস্কারে মনোনীত ছবি ‘লাগান’-এর ২০

এখন থেকে ২০ বছর আগে বলিউড সিনেমা ‘লাগান’ মুক্তি পায়। কিন্তু এখনো সেই সিনেমার প্রভাব জ্বলজ্বলে। এখনো লাগান মানুষের পছন্দের তালিকায় শীর্ষে। ২০০১ সালের ১৫ জুন মুক্তির পর এই অনন্য সিনেমা ইতিহাস, রেকর্ড ও মাইলফলক গড়লো। ঔপনিবেশিক সময়কে ধারণ করা এই সিনেমা শুধু উপমহাদেশের দর্শকের মনে জায়গা করে নেয়নি—পশ্চিমা দর্শক ও সমালোচকদেরও নজর কেড়েছিল। ২০০২ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি লাগান অস্কারের সেরা বিদেশি ভাষার সিনেমা বিভাগে মনোনয়ন পায়।

সিনেমার ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষে এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় সুপারস্টার আমির খান বলেছেন, ‘সিনেমাটি তৈরি করার সিদ্ধান্ত নেয়ার সময়ই আমি জানতাম, আমি একটি বড় চ্যালেঞ্জের মধ্যে পড়বো। এটি একটি অস্বাভাবিক সিনেমা।’ এই সিনেমার মাধ্যমেই আমিরের প্রযোজক হিসেবে অভিষেক হয়। মাত্র ২৫ কোটি রুপির বাজেটের সিনেমা আয় করে শত শত কোটি রুপি।

লাগান নির্মাণ প্রসঙ্গে আমির আরো জানান, সিনেমার শুটিং শুরুর সপ্তাহ খানেক আগে তিনি করণ জোহর ও আদিত্য চোপরার সঙ্গে দেখা করেন। তারা আমিরকে সাবধান করেন এবং বলেন, আমিরের এই সিনেমা করার সিদ্ধান্ত ভুল। আমির অবশ্য পরিষ্কার করেছেন, ‘দুজনেই আমার খুব ভালো বন্ধু এবং তারা সত্যিই আমাকে নিয়ে চিন্তিত ছিল।’ করণ ও আদিত্য আমিরকে সিঙ্গেল শিডিউলে শুট না করার পরামর্শ দিয়েছিলেন। কিন্তু আমির নিজের সিদ্ধান্তে অটল ছিলেন। পরে প্রমাণ হয়েছে আমিরই সঠিক।

সিনেমার গল্পের ধরন নিয়ে আমির কিছুটা চিন্তিত ছিলেন, কেননা এই সিনেমা প্রথাগত ধ্যান-ধারণা ভেঙে দিচ্ছিল। অন্য ছবিগুলো থেকে এটি একেবারে ভিন্ন। ছবির পরিচালক ও চিত্রনাট্যকার আশুতোষ গোয়ারিকার যখন গল্পটি শুনিয়েছিলেন, তখন আমিরের একই সঙ্গে ভালোলাগা ও দ্বন্দ্ব কাজ করেছে। বললেন, ‘খুবই জটিল গল্প। আমি এর সঙ্গে নিজেকে খাপ খাওয়াতে পারছিলাম না।…তখন মানুষ দামি দামি পোশাক পরছে, সুইজারল্যান্ডে শুটিং করছে। আর আমরা ধুতি পরে গ্রাম্য ভাষায় কথা বলছি। আমরা মূলধারা সিনেমার অনেক নিয়ম ভাঙছিলাম।’ পরে তো দেখাই গেলো, এই সিনেমা শুধু প্রথাই ভাঙেনি—ভেঙেছে বহু রেকর্ডও।

লাগান সিনেমা সম্পর্কে কয়েকটি মজার তথ্য দিয়ে শেষ করা যাক। সিনেমার শেষে যে ভিড়টি দেখা যায়, তা প্রায় ১০ হাজার মানুষকে জড়ো করে করা। সিনেমার কাজ শেষ করে পরিচালক আশুতোষকে প্রায় মাস খানেক বিছানায় পড়ে বিশ্রাম নিতে হয়েছিল। সিনেমায় র‍্যাচেল শেলি ও পল ব্ল্যাকথর্নকে হিন্দিতে কথা বলতে শোনা গেলেও তারা হিন্দির ‘হ’ও বুঝতেন না। টাইমস অব ইন্ডিয়া বলছে, অনেকে মনে করেন, লম্বা গান থাকার কারণেই লাগান অস্কার জয়ে ব্যর্থ হয়েছে আর অস্কার না পাওয়ায় পুরস্কারবিমুখ বলে পরিচিত আমির খানও অসন্তুষ্ট হয়েছিলেন।

এমন আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ বিনোদন